Press "Enter" to skip to content

পাহাড়ের পাথর ধসে পড়ায় নৌকায় থাকা ছয়জন নিহত, দেখুন ভিডিও

ক্যাপিটোলিয়া: পাহাড়ের পাথর পড়ার কারণে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটেছে ব্রাজিলে। এই দুর্ঘটনায় তিনটি নৌকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং নিহত ও আহতরা সবাই রিও গ্র্যান্ডে নদীতে নৌকায় করে যাচ্ছিলেন। যারা অন্য নৌকায় করে পর্যটন উপভোগ করেন তারা শুধু এই ঘটনার সাক্ষী হননি, চিৎকার করে অন্যকে সতর্কও করেছেন।

দেখুন কিভাবে পাথর খসে পড়ল

উল্লেখ্য, ১৯৫৮ সালে সেখানে নদীর ওপর একটি ফারনাস লেক তৈরি হয়। সেখানকার নদীর জল থেকে জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের ভাবনা থেকেই এই লেক তৈরি করা হয়েছে। এই কারণে পাশে বাঁধ তৈরি হওয়ায় সেখানে সবসময় জল থাকত। আর সেখানে জল থাকার কারণেই এলাকাটি ছিল পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু।

মানুষ ছুটির দিনে সেখানে আসতেন এবং নৌকায় করে লেক উপভোগ করতেন। এই দুর্ঘটনা সম্পর্কে বলা হয়েছে, দুই পাশে পাহাড় ছিল। এদিকে শনিবার হঠাৎ করে দূর থেকে লোকজন দেখতে পেলেন যে পাহাড়ের এক প্রান্ত থেকে একটি বড় পাথরের টুকরো ভেঙে পড়ছে।

তবে এই বড় পাথর টা খসে পড়ার আগে বেশ কিছ ছোট পাথর সেখানে পড়তে দেখা যায়। এই ঘটনা দেকে দূর থেকে যারা এটি দেখতে পেয়েছিলেন তারা অন্যদের সতর্ক করেন। লোকেদের আওয়াজ শুনে বেশ কিছূ নৌকা দুরত্বে চলে যায়। তবে কিছূ নৌকায় থাকা লোকেরা এই সতর্কতা বুঝতে না পেরে সেখান থেকে সরে যাবার চেস্টা করেন নি।

পাহাড়ের পাথর পড়ায় নিখোঁজদের সন্ধান চলছে

এই লেকে থাকা অন্য লোকেরা সেই ঘটনা নিজেদের মোবাইলে রেকর্ড করতে থাকেন। আলাদা আলাদা ভাবে রেকর্ড করা ভিডিও তে সমস্ত ঘটনাটি দেখা গিয়েছে। আকস্মিক ভাবে পাহাড়ের পাথর ধসে পড়ার সময় সেখানে উপস্থিত লোকজনও দেখতে পান, এই বিশাল পাথরটি সরাসরি নিচে দিয়ে যাওয়া নৌকাগুলোর ওপর পড়েছে।

ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে ত্রাণ তৎপরতা শুরু হয়। ত্রাণ ও উদ্ধারকারী দল এ পর্যন্ত ছয়টি মরদেহ উদ্ধার করেছে। পাথর পড়ে আহত ৩২ জনকেও চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। যারা বেশি আহত হয়েছে তাদের গত রাতেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এর পাশাপাশি সেখান থেকে প্রায় ২০ জন নিখোঁজ রয়েছে বলেও জানা গেছে। কারা এখনো নিখোঁজ, তাদের শনাক্ত করার কাজ এখনো চলছে, এমন তথ্য দিয়েছেন মিনাস গেরাইসের ফায়ার বিভাগের প্রধান এডগার্ড এস্টিভো।

Spread the love
More from ভিডিওMore posts in ভিডিও »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *