Press "Enter" to skip to content

আগ্নেয়গিরির পর্যবেক্ষকরা বজ্রপাত দেখে অবাক

লা পালমা : আগ্নেয়গিরির পর্যবেক্ষকরা বজ্রপাত দেখে অবাক মানুষ আগ্নেয়গিরির ঠিক উপরে বজ্রপাত দেখেছে। এই জায়গাটিতে আজকাল পর্যটকদের ভিড়।

তাদের বেশিরভাগই তাদের ক্যামেরা ও মোবাইল দিয়ে ছবি তুলতে থাকেন।এ কারণে বজ্রপাত হলে এই দৃশ্য অনেকের ক্যামেরায় ধরা পড়ে।

বজ্রপাতের এই ঘটনাটি ভিডিও তে দেখুন

এখন সেই ছবি ও ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। প্রসঙ্গত, বজ্রপাতের পর সেখান থেকে বেরিয়ে আসা ছাই তীব্র হয়েছে।

আগ্নেয়গিরির দুটি মুখ তৈরি হওয়ার পরে, দুটি থেকে লাভা অবিরাম প্রবাহিত হয়।এখন সেখানকার পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক ড্রোন ক্যামেরা দিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

এটাও করা হচ্ছে যাতে নিশ্চিত করা যায় যে এই কুম্বরে বিয়েজেআগ্নেয়গিরির ম্যাগমা ইজেকশন ইতিমধ্যেই কমছে কি না।

আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের এটাই প্রথম ঘটনা

আসলে এত দীর্ঘ সময় ধরে একটানা আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের এটাই প্রথম ঘটনা, যা আমরা আমাদের খালি চোখে দেখতে পাচ্ছি।

অন্যদিকে, আটলান্টিক মহাসাগরে লাভার ক্রমাগত প্রবাহের কারণে এই লাভা সেখানেও শক্ত হয়ে নতুন নতুন এলাকায় ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে।

ছাই এর বৈদ্যুতিক চার্জের কারণে বজ্রপাত আকাশে বজ্রপাত দেখে সেখানে উপস্থিত অনেকের মনে নানা প্রশ্ন উঠতে থাকে। এই বিষয়ে আরও আলোচনার কারণে, বিজ্ঞানীরা এই পরিস্থিতি অধ্যয়ন করেছেন এবং এর কারণগুলি ব্যাখ্যা করেছেন।

তার মতে, এটা বজ্রপাতের ঘটনা নয়।বিজ্ঞানীদের মতে, আগ্নেয়গিরি থেকে নির্গত ছাইও বৈদ্যুতিক চার্জযুক্ত। যখন তারা আকাশে একটি উচ্চ উচ্চতায় শীতল হয়, তখন এই চার্জগুলি একটি ত্বরিত বজ্রপাত ঘটায়।

মানুষ একে বজ্রপাতের ঘটনা বলে মনে করেছে। কারণ এত বেশি তাপমাত্রার অবস্থায় আকাশে উপস্থিত মেঘগুলোও উড়ে যায়। বর্তমানে আগ্নেয়গিরির ধোঁয়া ও ছাই আকাশে প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার উচ্চতায় পৌঁছেছে।

Spread the love
More from বিজ্ঞানMore posts in বিজ্ঞান »
More from ভিডিওMore posts in ভিডিও »
More from মহাকাশMore posts in মহাকাশ »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *