Press "Enter" to skip to content

ঘাটে ধাক্কা লেগে জলে ডুবে গেলো বাংলাদেশের ফেরী

ঢাকা: ঘাটে ধাক্কা লেগে ট্রাক ও পণ্যবাহী একটি নৌ যান হঠাৎ পদ্মা নদীতে ডুবে গেছে। কেন হঠাৎ করে বড় জাহাজটি এখন পর্যন্ত ডুবে গেল সে বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রসঙ্গত, পুরো বিষয়টি তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

ভিডিও তে দেখুন সেই জলযান ডুবে যাওয়া

খবর লেখা পর্যন্ত এ দুর্ঘটনায় নিহতদের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। প্রসঙ্গত, দেশের পরিস্থিতির মাঝে এটি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড নয়, এর আলোচনা চলছে পুরোদমে।

এই এলাকায় বড় নৌকা দিয়ে এক দিন থেকে অন্য দিকে আসা একটি প্রচলিত পথ। প্রতিদিন এই ধরনের প্রায় ৭০টি জাহাজ প্রতিদিন বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে আসা যাওয়া করে।

এসব জাহাজে ট্রাক ও মালামাল ছাড়াও বাস বোঝাই করা হয়। প্রকৃতপক্ষে এখান থেকে নদী পার করে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে পৌঁছানো তুলনামূলকভাবে সহজ এবং কম ব্যয়বহুল। বেনাপোল বন্দর থেকে শত শত ট্রাক এই পথ দিয়ে যাতায়াত করে।

এই নয়টি পরিবহনের গুরুত্বও বোঝা যায় যে এই রুটটি চব্বিশ ঘন্টা চালু রয়েছে।ঘাটে ধাক্কা লাগার সময় শত শত লোক সেখানে উপস্থিত ছিলো।

যারা এই ধরনের নৌকা থেকে ট্রাক বা অন্য পণ্য নামানোর কাজ করে, তারা বুঝলে পেরেছিলো যে জাহাজটি এক দিকে কাত হয়ে যাচ্ছে।

তাই তারা শোরগুল করে সবাই কে জাহাজ থেকে নেমে আসতে বলে। তাঁদের কথা শুনে যারা জলে ঝাঁপ দিয়েছিলো, তাদের দিকে লাইফ জ্যাকেট ছুড়ে দেওয়া হয়।

জাহাজটি যখন ডুবতে শুরে করেছে তখন কোন ক্রমে তিনটি ট্রাক সেটা থেকে নামতে সফল হয়।

ঘাটে ধাক্কা খাবার সাথে সাথে লোকেরা সতর্ক হয়

এই বড় নৌকায় অনেক মোটরসাইকেলও বোঝাই ছিল। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে নয়টি পরিবহন ছাড়াও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

কিন্তু জাহাজ ডুবির কারণে এই নৌপথও বন্ধ হয়ে গেছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, দৌলতিয়া থেকে ছেড়ে আসা এই নৌযানটি সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পাটুরিয়া ঘাটের কাছে পৌঁছালে হঠাৎ ডুবে যায়।

যশোর মণিরামপুরের অমল ভট্টাচার্য নামে এক ব্যক্তি মোটরসাইকেল নিয়ে এই নৌকায় উঠেছিলেন।

নৌকাডুবির ঘটনায় তিনি নিজে কোনোভাবে সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও নৌকাসহ তার মোটরসাইকেলটি ডুবে গেছে। ট্রাক ও মালপত্রের পাশাপাশি কিছু প্রাইভেট কারও ছিল এই নৌকায়, যা ডুবে গেছে।

Spread the love
More from ভিডিওMore posts in ভিডিও »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *