Press "Enter" to skip to content

মৌমাছির কামড়ে মারা গেছে দক্ষিণ আফ্রিকার ৬৩ বিরল পেঙ্গুইন

কেপটাউন: মৌমাছির কামড়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রায় বিলুপ্ত প্রজাতির ৬৩ টি পেঙ্গুইন মারা

গেছে। এই ঘটনাটি এখানে সমুদ্র সৈকতের কাছে ঘটেছে। এই অঞ্চলে সামুদ্রিক প্রাণী পেঙ্গুইনদের

জনসংখ্যা অধ্যুষিত। হঠাৎ মৌমাছির বিশাল ঝাঁক তাদের আক্রমণ করে। সমুদ্রে বসবাসকারী

এই প্রাণীরা মৌমাছির দংশন এড়ানোর কোন উপায় জানত না। এখন তাদের মৃতদেহ পাওয়া

যাওয়ার পর দেখা গেছে, বিশেষ করে তাদের চোখের চারপাশে মৌমাছির কামড়ে হুল ফুটে

আছে আর সেই কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। 

ঘটনাটি ঘটেছে কেপ টাউনের নিকটবর্তী শহর এবং সৈকত সিমোন শহরে। সেখানকার একজন

সুপরিচিত পশুচিকিত্সক ডেভিড রবার্টস বলেন, এর আগে কেউই আশা করেননি যে এই

ধরণের মৌমাছির কামড়ে বিরল পেঙ্গুইন শ্রেণীর প্রাণী মারা যাবে।  এই কারণে মানুষ

মৌমাছির কামড়ে যে মৃত্যু ঘটেছে তা লোকেরা প্রথমে বুঝতে পারেনি। কিন্তু সেখানে এ ধরনের

৬৩ টি মৃতদেহ আবিষ্কারের কারণে মানুষের হতবাক হওয়া স্বাভাবিক ছিল কারণ স্থানীয়

পর্যায়েও মানুষ এই বিরল প্রজাতির পেঙ্গুইন পরিচর্যার সম্পূর্ণ যত্ন নেয়।

ময়নাতদন্তের পর দেখা গেছে মৌমাছির দংশন এই প্রাণীদের শরীরে বিদ্যমান। তবে কেউ এটা

বলতে পারছে না যে মৌমাছিরা কেন হঠাত এদের ওপরে হামলা করেছে। সেই ব্যাপারে এখনও

কিছূ জানা যায় নি।

মৌমাছির কামড়ে সবচেয়ে বেশি চোখের চারপাশে বিষ

এই দংশনে থাকা বিষের কারণে তারা মারা গেছে। বিশেষ করে চোখের চারপাশে আরো বেশি

দংশনের মারাত্মক প্রভাব পড়েছে। অতীতে কখনও এই ধরণের হামলার ইতিহাস ছিল না।

এই কারণে, সেখানে পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা তদন্ত করছেন কেন মৌমাছি হঠাৎ তাদের উপর এত

বড় আক্রমণ করল। ঘটনাস্থলে মৃত মৌমাছিও প্রচুর পাওয়া গেছে। এই কারণে, পোস্ট-মর্টেম

রিপোর্টও নিশ্চিত করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বিলুপ্তির পথে এই পেঙ্গুইন প্রজাতির সংরক্ষণের জন্য

এখানে বিশেষ যত্ন নেওয়া হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলে এই প্রজাতির পেঙ্গুইনদের রক্ষা

ও সুরক্ষায় বিশেষ যত্ন নেওয়া হয়। এই কারণে, মৌমাছির কামড়ে এত বিপুল সংখ্যক পেঙ্গুইনের

মৃত্যুর কারণগুলিও গভীরভাবে তদন্ত করা হচ্ছে, কেন এটি ঘটেছে।

তবে আসে পাশের এলাকা গুলিতেও সবাইকে এই নিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। লোকজন সতর্ক

থাকলে তারা আগে থেকে দেখতে পাবে যে এই বিরল পেঙ্গুইন যেখানে থাকে, তার কাছাকাছি

মৌমাছির চাক আছে কি না। মৌমাছির চাক থাকলে আবার যাবে মৌমাছির কামড়ে পেঙ্গুইন

না মারা যায়, তার যথাযথ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love
More from HomeMore posts in Home »
More from নতূন খবরMore posts in নতূন খবর »

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *