Press "Enter" to skip to content

গঙ্গা নদীর ঘাটে কলার ভেলায় ভেসে এলো এক মধ্য বয়স্ক মহিলার মৃতদেহ

মালদা : গঙ্গা নদীর ঘাটে কলার ভেলায় ভেসে এলো এক মধ্য বয়স্ক মহিলার মৃতদেহ।

সোমবার দুপুরে এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে মানিকচক থানার শ্মশানঘাট

সংলগ্ন এলাকায়। মৃত মহিলার দেহটি যেহেতু কলার ভেলায় ভেসে নদীর ঘাটে ঠেকেছে, তাতেই

সংশ্লিষ্ট এলাকার একাংশ মানুষ মনে করছে সাপের কামড়ে এভাবেই আগেকার দিনের মানুষ

ভেলাতেই মৃতদেহ ভাসিয়ে দিত। ফলে এক্ষেত্রে তেমনই ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে। আবার কেউ

কেউ বলছেন , করোণা সংক্রমণে মারা যাবার পর হয়তো মৃতদেহটি নদীর জলে না ফেলে,

কলার ভেলায় ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে। নানা মানুষের নানা মতামত নিয়েই শুরু হয়েছে

মানিকচক থানা এলাকায় ব্যাপক শোরগোল।এই ঘটনার খবর পেয়ে মানিকচক থানার পুলিশ

শ্মশান ঘাট এলাকায় গিয়ে গঙ্গা নদী থেকে কলার ভেলায় বাধা ওই মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার

করে। এরপর সেই মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানোর

ব্যবস্থা করেছে তদন্তকারী পুলিশ কর্তারা।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত মহিলার বয়স ৩০

থেকে ৩৫ বছর । তবে ওই মহিলার পরিচয় সম্পর্কে কিছুই জানা যায়নি। কোথা থেকে

মৃতদেহটি ভেসে এলো, সে সম্পর্কে পরিস্কার করে কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে বিছানা আকৃতির

কলার ভেলায় ওই মহিলার দেহ দড়ি দিয়ে নিপুণভাবে বাঁধা ছিল। ভেলাটি ফুল এবং বিভিন্ন

কারুকার্য করে সাজানো ছিল। আর এই মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে মানুষের মধ্যেই নানান চর্চা

শুরু হয়েছে।

গঙ্গা নদী থেকে ওই মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ

গঙ্গা নদীর ঘাটে কলার ভেলায় ভেসে এলো এক মধ্য বয়স্ক মহিলার মৃতদেহ

শ্মশান ঘাট এলাকার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন , নদীতে স্নান করার সময় হঠাৎ

করেই করার ভেলাতেই একটি দেহ ভাসতে দেখা যায়। এরপর সেটি এই এলাকার গঙ্গার ঘাটে

এসে ঠেকে। মৃতদেহটি এক মহিলার। এই ধরনের ঘটনার কথা গল্প শুনেছি যে , সাপে কামড়ানো

রোগীকে প্রাচীনকালে নাকি কলার ভেলাতে বেঁধে ভাসিয়ে দেওয়া হতো ।ঠিক সেরকমই বিষয়

এদিন আমাদের চোখে পড়লো। পুলিশ খবর পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে মৃতদেহটি উদ্ধার করে নিয়ে

গিয়েছে । তবে করোণা সংক্রমণে ওই দেহটি এভাবে ভেসে এসেছে কিনা তা নিয়েও সন্দেহ

প্রকাশ করে পুলিশ। প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেই ওই মৃতদেহটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই

ধরনের ঘটনা মানিকচকের প্রথম বলে মনে করা হচ্ছে। নদীর ওপারে রাজমহল ঘাট, বিহার

রাজ্য। সেখান থেকে হয়তো ওই মহিলার দেহ ভেসে আসতে পারে।মানিকচক থানার পুলিশ

জানিয়েছে, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পরই ওই মহিলার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে

বলা যাবে। মৃত ওই মহিলা করোনায় আক্রান্ত ছিল কিনা বা সাপে কেটে মৃত্যু হয়েছে কিনা

এখনই কিছুই বলা যাচ্ছে না। সবই নির্ভর করছে ময়না তদন্ত রিপোর্টের ওপর। মৃতদেহটি

উদ্ধার করে মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

More from HomeMore posts in Home »
More from দেশMore posts in দেশ »
More from নতূন খবরMore posts in নতূন খবর »
More from বাংলাদেশMore posts in বাংলাদেশ »

One Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *