Press "Enter" to skip to content

ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে ২০০ মিটার লম্বা সুড়ঙ্গের সন্ধান

সুদীপ শর্মা চৌধুরী,

গুয়াহাটি : ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে ২০০ মিটার লম্বা সুড়ঙ্গের সন্ধান| আসাম পুলিশ

করিমগঞ্জে ভারত ও বাংলাদেশকে সংযুক্ত করে ২০০ মিটার দীর্ঘ  একটি সুড়ঙ্গ পেয়েছে|আসাম

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে যে ভারতের আসাম রাজ্যের করিমগঞ্জ  জেলার বাংলাদেশ সীমান্তসংলগ্ন

এলাকায় ২০০ মিটার লম্বা এক সুড়ঙ্গপথের সন্ধান মিলেছে|  সুড়ঙ্গপথটি এপারে ভারতের আসাম

রাজ্য আর অন্য পাড়ে বাংলাদেশকে যুক্ত করেছে|পুলিশ সূত্র  সন্দেহ করেছে যে এই টানেলটি

আন্তর্জাতিক চোরাচালান বা অপহরণের জন্য ব্যবহৃত হয়| পুলিশ বলছে, এই গোপন সুড়ঙ্গপথে

যাতাযাত ছিল দুই দেশের সীমান্তের আন্তর্জাতিক  চোরাকারবারি আর দুষ্কৃতকারীদের| সীমান্তের

চোরাচালান, মানব পাচারের বিচরণক্ষেত্র ছিল  এটি| করিমগঞ্জ জেলার নিলামবাজার থানা

এলাকার মধ্যে পড়েছে এলাকাটি|গত রোববার  নিলামবাজার থানার সীমান্তের শিলুযা গ্রামের

বাসিন্দা দিলোযার হোসেনকে একটি বিযোড়িতে  নিয়ে যাওযার কথা বলে অবিলম্বে নযাগ্রামের

এলিম উদ্দিন তাঁকে ডেকে নিযে যান| তাঁকে  জঙ্গলের ওই সুড়ঙ্গপথ দিয়ে নিয়ে যান এলিম

উদ্দিন| এরপরই দিলোযার হোসেনের বাড়িতে  ফোন আসে মুক্তিপণের| বলা হয়, দিলোযার

হোসেনকে পেতে হলে অবিলম্বে দিতে হবে পাঁচ লাখ  টাকা| আর তা দিতে হবে নযা গ্রামের

বাসিন্দা এলিম উদ্দিনের কাছে| দেখা যায়, ওই ফোন বারবার এসেছে বাংলাদেশের একটি নম্বর

থেকে| এরপরই দিলোযার হোসেনের বড় ভাই ছুটে  আসেন নিলামবাজার থানায| গত ৱুধবার

অপহরণের অভিযোগ দায়ে করে| পুলিশ তদন্ত শুরু করে|

ভারত সীমান্তরক্ষী বাহিনী কে এই গোপন সড়ঙ্গপথের তথ্য দিলেন

দিলোযারের পরিবারও পুলিশের পরামর্শে বারবার মুক্তিপণের টাকা  কমানোর আবেদন

করলেও তাতে সায় দেয়নি অপহরণকারীরা|অবশেষে তদন্তে নামেন করিমগঞ্জ জেলার পুলিশ

সুপার মযঙ্ক কুমার ঝাঁ| তিনি চলে আসেন ওই সুড়ঙ্গপথের সন্ধানে| সঙ্গে  নেন অতিরিক্ত পুলিশ

সুপার জ্যোতি রঞ্জন দেবনাথ এবং নিলামবাজার থানার সিআই  আনোযার হোসেনকে| এর

আগেই একপর‌্যায়ে গ্রেপ্তার করেন এলিম উদ্দিনকে| তাঁকে জেরা করে  জানা যায় এই সুড়ঙ্গপথের

কথা|খবরটি চলে যায় ওপারের দুষ্কৃতকারীদের কানে| অগত্যা  দুষ্কৃতকারীরা ছেড়ে দেয়

দিলোযার হোসেনকে| দিলোযার হোসেন ছাড়া পেয়ে পুলিশকে সব ঘটনা জানান| পুলিশও তাজ্জব

হযে যায়| এই জঙ্গলে ২০০ মিটার লম্বা সুড়ঙ্গপথের কথা তাদের জানাই  ছিল না| একেবারে

জঙ্গলের মধ্যে অবস্থান ছিল এই সুড়ঙ্গপথের| একটু দূরেরই ছিল সীমান্তের  কাঁটাতারের বেড়া|

এসবের মধ্যেই ছিল এই গোপন সুড়ঙ্গপথ|এ ঘটনার পর পুলিশ ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে

(বিএসএফ) জানায এই গোপন সুড়ঙ্গপথের কথা| বিএসএফ এসে এই  সুড়ঙ্গপথের ভারতীয়

অংশের মুখ বন্ধ করে দেয়| গ্রেপ্তার করা হয এলিম উদ্দিনকে| পুলিশ  বলেছে, অচিরেই এই

আন্তর্জাতিক দুষ্কৃতকারীদের গ্রেপ্তার করা হবে|দিলোয়ারের মতে, করিমগঞ্জে  প্রায় ৯২

কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্তে প্রায় ৬৩৩ টি প্রাকৃতিক ফাঁক রয়েছে|অনুপযুক্ত ২২ টি প্যাচ  থাকায়

এই জায়গাগুলিতে অনুপ্রবেশ ছড়িয়ে পড়ে|

More from HomeMore posts in Home »
More from দেশMore posts in দেশ »
More from নতূন খবরMore posts in নতূন খবর »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *